মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

জহিরনগর সিদ্দিকীয়া দাখিল মাদ্রাসা

  • সংক্ষিপ্ত বর্ণনা
  • প্রতিষ্ঠাকাল
  • ইতিহাস
  • প্রধান শিক্ষক/ অধ্যক্ষ
  • অন্যান্য শিক্ষকদের তালিকা
  • ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা (শ্রেণীভিত্তিক)
  • পাশের হার
  • বর্তমান পরিচালনা কমিটির তথ্য
  • বিগত ৫ বছরের সমাপনী/পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল
  • শিক্ষাবৃত্ত তথ্যসমুহ
  • অর্জন
  • ভবিষৎ পরিকল্পনা
  • ফটোগ্যালারী
  • যোগাযোগ
  • মেধাবী ছাত্রবৃন্দ

জহিরনগর সিদ্দিকীয়া দাখিল মাদ্রাসাটি ১৯৭৫ সালে আলহাজ্ব এস,এম লোকমান হাকিম সাহেবের অক্লামত প্রচেষ্টায় এবং মরহুম আলহাজ্ব এস,এম ইফাজতুল্লাহ সাহেবের সহযোগীতায় শ্যামনগর উপজেলা থেকে ২০ কিঃ মিঃ দুরে অবস্থিত সুন্দরবনের কোল ঘেষে যতীন্দ্রনগর গ্রামে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। ১ একর ২৩ শতক জমির উপর স্থাপিত প্রতিষ্ঠানটির জমিদাতা ছিলেন আলহাজ্ব এস,এম লুৎফর রহমান , আলহাজ্ব এস, এম, লোকমান হাকিম, মরহুম আলহাজ্ব এস,এম, বাবরালী ও  এস, এম আব্দুর রউফ।

মাদ্রাসাটির অবস্থানঃ মৌজা- হরিনগর, ।

সিট নং- ০৬

জে,এল নং-৭৯, হাল জে,এল নং- ৮০

খতিয়ান নং-৫৯,

এস,এ দাগ নং-১৪২০,১৪২১, ১৪২২,১৪২৩।

ইউনিয়ন- ৭নং মুন্সিগঞ্জ।

উপজেলা- শ্যামনগর, জেলা- সাতক্ষীরা।

সাতক্ষীরা জেলাধীন শ্যামনগর উপজেলার অমতর্গত ৭নং মুন্সিগঞ্জ ইউনিয়নের সুদুর দক্ষিনে সুন্দরবনের কোল ঘেষে যতীন্দ্রনগর গ্রামে অবস্থিত জহিরনগর সিদ্দিকীয়া দাখিল মাদ্রাসা। মাদ্রসার ইতিহাস সংক্ষেপে বর্ননা করা হলো। আজ হতে ৪৪ বছর পূর্বে ১৯৬৭ সালে তদানিমতন বিদ্যোৎসাহী ও বিশিষ্ট সমাজ সেবক মরহুম আলহাজ্ব এস,এম সোনাউল্লাহ সাহেবের প্রচেষ্টায় এবং ধর্মপ্রান মানুষের সহায়তায় এস,এম জিনাতুল্লাহ সাহেবের ভিটায় মাটির দেওয়াল ও গোলপাতার ছাউনি দ্বারা একটি ঘর তৈরী করে ফোরকানিয়া মাদ্রাসা চালু হয়। ১৯৭২ইং সালে উক্ত ফোরকানিয়া মাদ্রাসাটি আরবী শিক্ষার সাথে সাধারন শিক্ষার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করে আলহাজ্ব এস,এম লোকমান হাকিম সাহেবের উদ্যোগে- মরহুম আলহাজ্ব ইফাজতুল্লাহ সাহের সহায়তায় এবতেদায়ী পর্যায়ে উন্নীত করা হয়। ১৯৭৫ইং সালে আলহাজ্ব এস,এম লোকমান হাকিম সাহেবের অক্লামত প্রচেষ্টায় এবং মরহুম আলহাজ্ব এস,এম ইফাজতুল্লাহ সাহেবের সহযোগীতায় মাদ্রাসাটি দাখিল পর্যায়ে উন্নিত হলে স্থায়ীভাবে মাদ্রাসা গৃহ নির্মানের জন্য আলহাজ্ব এস,এম লুৎফর রহমান সাহেব ৬৭.৫ শতাংশ জমি দান করেন। উক্ত জমিতে মাটির দেওয়াল বাঁশ ও গোলপাতা দিয়ে দুইটি গৃহ নির্মান করা হয়। মাদ্রাসাটির নাম করন করা হয় জহিরনগর সিদ্দিকীয়া জুনিয়ার দাখিল মাদ্রাসা। পর্যায়ক্রমে মাদ্রাসাটির আরো উন্নতির লক্ষে স্থানীয় জনগনের মধ্য হতে আলহাজ্ব বাহাদুর আলী মোড়ল, আলহাজ্ব মরহুম বাবরআলী সরদার, আলহাজ্ব মরহুম ইফাজতুল্লাহ, আলহাজ্ব এস, এম, লোকমান হাকিম, আব্দুর রউফ সরদার, আবু তাহের সানা, মরহুমা হনুফা বিবি নিজ নিজ সাধ্যমত জমি দান করেন। এ সুযোগে জনাব আলহাজ্ব এস,এম, লোকমান হাকিম সাহেবের প্রচেষ্টায়, আলহাজ্ব মরহুম ইফাজতুল্লাহ সাহেব, আলহাজ্ব বাহাদুর আলী মোড়ল সাহেব, আলহাজ্ব বাবর আলী সরদার সাহেব, এস,এম, আব্দুর রউফ সাহেব সহ বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গকে সাথে নিয়ে অত্র এলাকাতে ছেলে মেয়েদের ধর্মীয় শিক্ষার প্রতি খেয়াল করে জুনিয়র মাদ্রাসাটিকে ১৯৮৫ সালে দাখিল পর্যায়ে উন্নিত করেন। মাদ্রাসাটি ১৯৮৬সালে সরকারী অনুমোদন প্রাপ্ত হয়। ইং ১৯৮৮ সালের প্রলয়ংকারী ঘুর্ণিঝড়ে মাদ্রাসাটি একেবারে বিদ্ধস্থ হয়। স্থানীয় জনসাধারণের প্রচেষ্টায় মাটির দেওয়াল বাঁশ ও গোলপাতা দিয়ে প্রতিষ্ঠানটি পড়াশুনার উপযোগী করা হয়। ইং ১৯৯৭/৯৮ অর্থবছরে সুবিধাপ্রদান বিভাগ কর্তৃক ৪ রুম বিশিষ্ট একটি আশ্রয় কেন্দ্র তৈরী হলে সেখানে কয়েকটি শ্রেনীর পাঠদান কর্যক্রম শুরু করা হয়। ইং ২০০০ সালে মাটির ঘরটি ভেঙ্গে উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের অনুদানে এবং স্থানীয় জনসাধারনের সহযোগীতায় ৪ রুমের টিনের ছাউনি বিশিষ্ট একটি পাকা ঘর নির্মান করা হয়। ইং ২০০৫ সালে উপজেলা পরিষদ ও স্থানীয় ব্যক্তিদের অনুদানে ২টি রুম বিশিষ্ট একটি ভবন নির্মান করা হয় এবং এর পরপরই আলহাজ্ব এস,এম লোকমান হাকিম সাহেবের অনুদানে উক্ত ভবনের উপর আরোও  ২টি রুম নির্মান করা হয়। বর্তমানে মাদ্রাসাটিতে শ্রেনী কক্ষ ছাড়াও আছে পৃথক একটি পাঠাগার, একটি কম্পিউটার কক্ষ, অফিস কক্ষ, কমন রুম। ইহা ছাড়া মাদ্রাসার ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষকদের জন্য আছে পৃথক পৃথক পাকা টয়লেট। পানীয় জলের জন্য আছে গভীর নলকূপ এবং খেলাধুলার জন্য আছে একটি মাঠ। অদ্যাবধি মাদ্রাসাটি আল্লাহর অশেষ মেহেরবানীতে অত্যামত গর্ব ও সাফল্যের পরিচয় বহন করিয়া চালিয়া আসিতেছে। মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠা লগ্ন হতে আজ পর্যমত ২৬৬ জন ছাত্র-ছাত্রী দাখিল পরীক্ষায় কৃতকার্য হয়ে উকিল, রাজনীতিবীদ, শিক্ষক, সরকারি কর্মচারী ও সমাজ সেবক হয়েছে । মাদ্রাসাটিতে ভবিষ্যতে শিক্ষার গুনগত মানসহ সার্বিক উন্নতি উত্তর উত্তর বৃদ্ধি পাক এটাই আমাদের সকলের প্রত্যাশা।

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল

৩৬১ জন

৮৬.৬৭%

ক) ম্যানেজিং কমিটিঃ

ক্রমিক নং

নাম

পদবী

মাওঃ মোশাররফ বিল্লাহ

সভাপতি

আ,ফ,ম হাবিবুর রহমান

সম্পাদক

আলহাজ্ব এস,এম লোকমান হাকিম

সদস্য

মোঃ আবু বকর সিদ্দিক

সদস্য

এ,বি,এম আব্দুল মান্নান

সদস্য

মোঃ সিরাজুল ইসলাম

সদস্য

মোছাঃ শাহানারা বেগম

সদস্য

এস, এম এমদাদুল হক

সদস্য

মোঃ আব্দুল গফুর মোড়ল

সদস্য

১০

মোঃ আকবার হোসেন গাজী

সদস্য

১১

আলহাজ্ব মোঃ জিয়াদ আলী গাজী

সদস্য

 

খ) ইভটিজিং কমিটিঃ-

 

ক্রমিক নং

নাম

পদবী

শাহারাত সরদার

সভাপতি

রাফিজা মোড়ল

সদস্য

বেগম সাজিদা খানম

সদস্য

শহীদুল আলম

সদস্য

আব্দুল করিম

সদস্য

মোঃ সিরাজুল ইসলাম

সদস্য

গ) অভ্যমতরিন নিরিক্ষা কমিটিঃ

ক্রমিক নং

নাম

পদবী

জি,এম নুরুল ইসলাম

সভাপতি

আনিছুর রহমান

সদস্য

মাকছেদুল ইসলাম

সদস্য

আব্দুল করিম

সদস্য

রাকিবুল হাসান

সদস্য

মোঃ সিরাজুল ইসলাম

সদস্য

ক) দাখিল পরীক্ষাঃ

ক্রমিক নং

সাল

পরীক্ষার্থী সংখ্যা

সর্বমোট পাশ

পাশের হার

২০০৭ ইং

৩৩ জন

২৯ জন

৮৭.৮৮%

২০০৮ ইং

৩২ জন

২৮ জন

৮৭.৫%

২০০৯ ইং

২৪ জন

২১ জন

৮৭.৫%

২০১০ ইং

৪০ জন

৩৯ জন

৯৭.৫%

২০১১ ইং

৩০ জন

২৬ জন

৮৬.৬৭%

 

খ) জেডিসিঃ

ক্রমিক নং

সাল

পরীক্ষার্থী সংখ্যা

সর্বমোট পাশ

পাশের হার

২০১০ ইং

৫১ জন

৩৬ জন

৭০.৫%

২০১১ ইং

৪৪ জন

৪৪জন

১০০%

ক) উপবৃত্তি/২০১১ইং

শ্রেনী

ছাত্র

ছাত্রী

মোট

৬ষ্ঠ

৩ জন

১৩ জন

১৬ জন

৭ম

৩ জন

১৩ জন

১৬ জন

৮ম

১ জন

১৩ জন

১৪ জন

৯ম

২ জন

৯ জন

১১ জন

১০ম

১ জন

৬ জন

৭ জন

 

খ) বৃত্তিঃ

 জেডিসি’ ২০১০

বৃত্তির ধরন

মোট

ট্যালেন্টপুল

১ জন

সাধারন

-

জহিরনগর সিদ্দিকীয়া দাখিল মাদ্রসা ইং ১৯৭৫ সালে প্রতিষ্ঠা লাভের পর ইং ০১/০৬/১৯৮৬সালে ১ম স্বীকৃতি লাভ করে। স্বীকৃতি লাভের পর ইং ১৯৮৭সালে অত্র মাদ্রাসা হতে দাখিল পরীক্ষায় অংশগ্রহনকারীদের মধ্য হতে ২জন দ্বিতীয় বিভাগে পাশ করে। এভাবে ইং ১৯৮৭সাল থেকে ২০০০সাল পর্যমত মোট ৪৭জন পাশ করে এবং ইং ২০০১সাল থেকে ২০১১সাল পর্যমত ২১৯জন ছাত্র-ছাত্রী পাশ করে। এর মধ্যে "এ+" ১২জন, "এ" ৮৪জন, "এ-" ৫৬জন, "বি" ৩৭জন, "সি" ২৫জন, "ডি" ৫জন। ইহা ছাড়া ১জন ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি লাভ করেছে। উত্তীর্ন ছাত্র/ছাত্রীদের মধ্য থেকে অনেকেই শিক্ষক, উকিল, রাজনীতিবীদ ও সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারী হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। তাছাড়া খেলাধুলার দিকথেকে মাদ্রাসার সুনাম সর্বত্র। বিশেষ করে ফুটবল খেলায় মাদ্রাসার বিশেষ সুনাম রয়েছে। সবদিক থেকে বিচার বিবেচনা করলে মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকে তার অর্জন প্রশংসনীয়।

মাদ্রাসাটির পাবলিক ও অভ্যমতরিন পরীক্ষার ফলাফল যাতে আরও ভাল হয় তার জন্য মাদ্রাসার শিক্ষক, ম্যানেজিং কমিটি ও অভিভাবক মন্ডলির সমন্নয়ে পর্যালোচনা পূর্বক প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে। বিশেষভাবে শ্রেনী পাঠদান কার্যক্রম যাতে আরও উন্নত হয় সেজন্য শিক্ষক বৃন্দের সহিত  প্রতিমাসে একটি করে মিটিং করা হবে, এবং ছাত্র-ছাত্রীদেরকে সময় উপযোগী ও প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনা দেয়া হবে। এককথায় মাদ্রাসার যাবতীয় কর্যক্রম যাতে সুশৃঙ্খল ও সুষ্টভাবে পরিচালিত হয় এবং শিক্ষার মান উত্তর উত্তর বৃদ্ধিপায় তার জন্য প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

নাম

পদবী

ঠিকানা

ইমেল

ফোন

আ,ফ,ম, হাবিবুর রহমান

সুপারিনটেনডেন্ট

জহিরনগর সিদ্দিকীয়া দাখিল মাদ্রাসা। যতীন্দ্রনগর,শ্যামনগর।

jahirnagarsiddiquia_dakhil@yahoo.com

০১৭১৫-৩৬৮০১৩

ক্রঃ নং

ছাত্র-ছাত্রীদের নাম

মমতব্য

মোহসিনা পারভীন মুক্তা

 

আরিফা খাতুন

 

রাবেয়া খাতুন

 

মারিয়াম পারভীন

 

আছিয়া খাতুন

 

আবুবকর সিদ্দিক

 

আবদুল্লাহ আল মামুন

 

আদম আলী

 

নাজমা পারভীন

 

১০

জেসমিন নাহার

 

১১

মাহবুবা

 

১২

সাবিকুন নাহার

 

১৩

আব্দুর রাজ্জাক

 

১৪

রুমানা পারভীন

 

১৫

তানজিলা খাতুন

 

১৬

মারিয়াম খাতুন

 

১৭

রুপা পারভীন

 

১৮

ওবায়দুল্লাহ

 

১৯

মাশকুরা খাতুন

 

২০

মহিবুল্লাহ

 

২১

শরিফা খাতুন

 

২২

তহমিনা